অলিভ অয়েলের নানান ব্যবহার

অলিভ অয়েলের ব্যবহার বা উপকারিতার কথা কমবেশি সবাই আমরা জানি। চুলের যত্নে বা রূপচর্চায় এর ব্যবহার সবচেয়ে বেশি হয়। আবার রান্নার কাজেও এটি অনেকে ব্যবহার করে থাকেন।জেনে নেয়া যাক অলিভ অয়েলের নানান ব্যবহার :

ত্বকের যত্নে :
অলিভ অয়েলে আছে ভিটামিন এ ও ভিটামিন ই যা শুষ্ক, স্বাভাবিক ও তৈলাক্ত ত্বকের জন্য খুব ভালো। এমনকি যাদের ত্বক একটু সেনসেটিভ তারাও অলিভ অয়েল ব্যবহার করতে পারেন। অলিভ অয়েল ত্বকের বলিরেখা দুর করে। এছাড়া নির্জীব ত্বকের সমস্যাতে অলিভ অয়েল দারুন কার্যকরী।

বডি লোশন :
গােসলের পর অলিভ অয়েল গায়ে মাখলে সেটা বডি লোশনের কাজ করবে। ভেজা শরীরে অলিভ অয়েল ম্যাসাজে ত্বকের ভিতরে গিয়ে পুষ্টি যোগাবে। ফলে ত্বক হয়ে উঠবে কোমল ও মসৃন।

চুলের যত্নে :
চুলের যত্নে অলিভ অয়েলের জুড়ি নেই। গোসলের আগে সামান্য তেল গরম করে স্ক্যাল্পে ও চুলে লাগিয়ে নিন এবং হালকা হাতে ম্যাসেজ করুন। ১০-১৫ মিনিট পর শ্যাম্পু করে ধুয়ে নিন।এতে করে চুল মজবুত হবে ও চুলে মসৃনতা বাড়বে।

ঠোটের যত্নে :
এক চা-চামচ অলিভ অয়েল,সামান্য পাতিলেবুর রস ও বড় দানার চিনি একসঙ্গে মিশিয়ে ঠোটে লাগিয়ে নিন। আঙ্গলের ডগা দিয়ে ঘষে নিন এতে মরা কোষ দুর হবে এ ঠোটের উজ্জলতা বাড়বে।

চোখের যত্নে:
প্রতিদিন ঘুমাতে যাওয়ার আগে চোখের চারপাশে অলিভ অয়েল লাগিয়ে ম্যাসাজ করুন এতে করে ত্বকের কালো দাগ দুর হবে ও সহজে বলিরেখা পড়বেনা।

পায়ের যত্নে :
পায়ের যত্নে অলিভ অয়েলের ব্যবহার অতুলনীয়। পায়ের যত্নে ১ চামচ লবণ নিয়ে তাতে পরিমাণমতো অলিভ ওয়েল মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে পায়ে ম্যাসাজ করুন। ভালো ফল পাবেন ।

 

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password