সুস্থতার থেকে চাকরি বেশী গুরুত্বপূর্ণ নয়

সুস্থতার থেকে চাকরি বেশী গুরুত্বপূর্ণ নয়। যদি চাকরি আপনার বিষণ্ণতার এবং অসুস্থতার কারণ হয়ে দাঁড়িয়ে থাকে, তাহলে সেখান থেকে সরে যাওয়াই ভালো। যদি এই মুহূর্তেই ছেড়ে দেয়ার উপায় না থাকে তাহলে ভালো সুযোগের জন্য অপেক্ষা করুন। তবে অবশ্যই সেজন্য চেষ্টা শুরু করতে হবে এখন থেকেই……….

মানসিক স্বাস্থ্য: ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটির একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে ‘খারাপ’ চাকরিতে বেকারদের তুলনায় বেশী মানসিক স্বাস্থ্যের সমস্যা হয়। অর্থাৎ ‘দুষ্ট গরুর চেয়ে শূন্য গোয়াল ভালো।’ আত্মবিশ্বাসের অভাব দেখা দেয়, কাজের মনোযোগ কমে যায়, বিষণ্ণতায় ভুগতে হয় কর্মক্ষেত্রে শান্তি না থাকলে। জাপানে অনেকে অফিসের প্রতি অসন্তুষ্টি থেকে আত্মহত্যাও করেন। তাই যে চাকরিতে মানসিক স্বাস্থ্যের ক্ষতি হচ্ছে, সেই চাকরি থেকে অতি দ্রুত সরে যাওয়াই ভালো।

ওজন বৃদ্ধি: চাকরিতে অতিরিক্ত চাপ এবং অসন্তুষ্টির কারণে ওজন বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনাও থাকে। মানসিক চাপ এবং বিষণ্ণতা ভুলতে অনেকেই মিষ্টি খাবার কিংবা ফাস্ট ফুড বেশী খেয়ে ফেলেন। আবার কাজের চাপে ঘণ্টার পর ঘণ্টা চেয়ার থেকেই উঠার সুযোগ হয় না। ফলে অস্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রার প্রভাব পরে স্বাস্থ্যে।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে: অতিরিক্ত চাপে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কাজ করা এবং প্রশংসা না পাওয়ার কারণে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও কমে যায়। সাধারণ হাঁচি-কাশি এবং ক্লান্তি লেগেই থাকে। এক জায়গায় দীর্ঘ সময় বসে থাকায় রক্তচলাচলেও ব্যাঘাত ঘটে। আবার ব্যস্ততায় সুষম খাবার খাওয়ার সময়ও পাওয়া যায় না অনেক সময়ে। তাই ঘনঘন অসুখে ভোগার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

-ইউএস নিউজ

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password