লন্ডনের মাটিতে কিশোরগঞ্জের সন্তান সাজ্জাদের ঐতিহাসিক জয়

ব্রিটেনে বাংলাদেশি কমিউনিটির অবস্থান এখন অন্য যে কোনো সময়ের তুলনায় অনেক শক্ত এক ভিতের ওপর প্রতিষ্ঠিত। সেখানকার বাঙালিদের এক বৃহৎ অংশই ব্রিটেনের মূলধারার রাজনীতি, অর্থনীতি, পররাষ্ট্রনীতি, আইন ও বিচার ব্যবস্থা, সংস্কৃতি ও সমাজনীতিতে ব্যাপক ভূমিকা রেখে চলেছেন। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ব্রিটিশ মূলধারার রাজনীতিতে বাঙালিদের অভিষিক্ত হওয়াই এর প্রমাণ।

এরই ধারাবাহিকতায় এবার ব্রিটেনের লন্ডন সাউথ ব্যাংক ইউনিভার্সিটির লন্ডন সাউথ ব্যাংক স্টুডেন্টস ইউনিয়ন নির্বাচনে চমক দেখালেন বাংলাদেশী এক তরুণ। তার নাম সাজ্জাদ হোসেন। তিনি লন্ডন সাউথ ব্যাংক স্টুডেন্টস ইউনিয়ন নির্বাচনে ভাইস প্রেসিডেন্ট (এডুকেশন) নির্বাচিত হয়েছেন। সাজ্জাদ হোসেন কিশোরগঞ্জের সন্তান। তার বাড়ি জেলার প্রত্যন্ত হাওর জনপদ ইটনা উপজেলার জয়সিদ্ধি ইউনিয়নের করনশী গ্রামে। পিতা শেখ তৌফিকুল আলমের চার পুত্র ও চার কন্যার মধ্যে সাজ্জাদ হোসেন ৭ম।

সাজ্জাদ হোসেনের নির্বাচনী মেনিফেস্টো ছিল, ‘অধিকতর ভাল পরিবর্তনের জন্য আমাকে কাজ করার সুযোগ দিন।’ সাজ্জাদের সেই মেনিফেস্টোতে আস্থা রেখে ইউনিয়নের ভোটাররা স্বতস্ফূর্তভাবে ভোট দিয়ে তাকে বিজয়ী করেন। সাজ্জাদকে বিজয়ী হিসেবে ঘোষণার সময় ইউনিভার্সিটি হল রুম জুড়ে করতালিতে ফেটে পড়েন স্টুডেন্টস ইউনিয়নের ভোটার বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীরা।

২০১১ সালে উচ্চ শিক্ষার লন্ডনে যান সাজ্জাদ। সেখানকার সিটি অব লন্ডন বিজনেস কলেজ থেকে তিনি ২০১৩ সালে হায়ার ন্যাশনাল ডিপ্লোমা অর্জন করেন। পরে ২০১৬ সালে লন্ডনের গ্লিনডর ইউনিভার্সিটি থেকে বিজনেস ম্যানেজমেন্ট এর উপর ব্যাচেলর ডিগ্রি নেন। চলতি বছরের মার্চে লন্ডন সাউথ ব্যাংক ইউনিভার্সিটি থেকে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস এ তিনি মাস্টার্স সম্পন্ন করেছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, লন্ডন সাউথ ব্যাংক স্টুডেন্টস ইউনিয়ন হচ্ছে ইউনিয়নের মধ্যে গণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের সর্বোচ্চ স্তর। প্রতি বছর নির্বাচনের মধ্য দিয়ে এর নেতৃত্ব নির্বাচন করা হয়। কমিটিতে চার জন পূর্ণকালীন কর্মকর্তা নির্বাচিত হন যারা বছরজুড়ে স্টুডেন্টস ইউনিয়নের নেতৃত্বে থেকে কাজ করেন। এই চারটি পদ হচ্ছে, প্রেসিডেন্ট এন্ড ইউনিভার্সিটি গভর্নর, ভাইস প্রেসিডেন্ট (এডুকেশন), ভাইস প্রেসিডেন্ট (ওয়েলফেয়ার এন্ড ইকুয়্যালিটিস) এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট (একটিভিটিস এন্ড এমপ্লয়াবিলিটি)।

২০১৮-২০১৯ মেয়াদের জন্য গত ৮ই জানুয়ারি নমিনেশনস ওপেন করা হয়। ২৬শে ফেব্রুয়ারি থেকে ভোটিং ওপেন করা হয় যা চলে ২রা মার্চ দুপুর ১টা পর্যন্ত। ২রা মার্চ স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণা করা হয়। নির্বাচনে একমাত্র বাংলাদেশী হিসেবে ইউনিয়নের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পদ ভাইস প্রেসিডেন্ট (এডুকেশন) পদে প্রার্থী হন সাজ্জাদ হোসেন।

 

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password