শেষ হলো হিলারি-ট্রাম্পের তৃতীয় বিতর্ক

যুক্তরাষ্ট্র প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের দুই প্রার্থী ডেমোক্র্যাট হিলারি ক্লিনটন ও রিপাবলিকান ডনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যকার তৃতীয় বিতর্ক শেষ হলো । অবশ্য করমর্দন ছাড়াই শুরু হয়েছিলো এই বির্তক।

বুধবার রাত ৯টায় (বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার সকাল ৭টায়) যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাসের নেভাডা বিশ্ববিদ্যালয়ে শুরু হয় তাদের তৃতীয় বিতর্ক। আর বিতর্ক শেষ হয় বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টা ৩৪ মিনিটে। এবার সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন ফক্স নিউজ সানডের উপস্থাপক ক্রিস ওয়ালেস।

শুরুতে লাস ভেগাসের নেভাডা বিশ্ববিদ্যালয়ের মঞ্চে উঠেই দুই প্রার্থীই নিজ নিজ পোডিয়ামে সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে থাকলেন। আর বিতর্ক শুরু হলো সুপ্রিম কোর্টে বিচারক নিয়োগ নিয়ে।

সুপ্রিম কোর্টকে জনগণের পাশে থাকার কথা বললেন হিলারি ক্লিনটন। তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট একটি কেন্দ্রীয় বিষয়, এবং আদালতকে সাধারন মানুষের পাশে থাকতে হবে, ক্ষমতাধর কর্পোরেটদের স্বার্থ রক্ষা করতে আদালত নয়।

গর্ভপাত ইস্যুতে ট্রাম্পের বক্তব্য মায়ের গর্ভ থেকে বাড়ন্ত শিশুকে বের করে আনা হয়। আর হিলারির কাছে জানতে চাওয়া হয় কেনো তিনি দেরিতে গর্ভপাত বন্ধের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছিলেন। উত্তরে হিলারি বলেন, এটি পুরোপুরি একজন মায়ের সিদ্ধান্তের বিষয়।

অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ ইস্যুতে ট্রাম্প টেনে আনলেন শিকাগোর প্রসঙ্গ। বললেন, এখানে অস্ত্র নিয়ন্ত্রণের পরেও সন্ত্রাস, সহিংসতা কমেনি। তবে বাস্তবতা হচ্ছে শিকাগোর এই সহিংসতায় জড়িতরা পাশের ইন্ডিয়ানা থেকে অস্ত্র কিনে আনছেন, যেখানে অস্ত্র নিয়ন্ত্রিত নয়।

অভিবাসন প্রসঙ্গে প্রতিবারের মতো এবারও অবৈধ অভিবাসীর প্রবেশ ঠেকাতে মেক্সিকান সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের কথা তুললেন রিপাবলিকান প্রার্থী ডনাল্ড ট্রাম্প।

ট্রাম্প বলেন, ‘মেক্সিকান সীমান্তে আমি দেয়াল বসাতে চাই। আমাদের দেয়াল নির্মাণ প্রয়োজন।’ পারমাণবিক অস্ত্র প্রসঙ্গে হিলারি ক্লিনটন বলেন, পারমাণবিক অস্ত্রে সজ্জিত আরও দেশ চান ট্রাম্প। কিন্তু হিলারির কথায় আপত্তি জানিয়ে ট্রাম্প বলেন, আমি পারমাণবিক নিয়ে কথা বলিনি। আমি আমাদের নিরাপত্তা নিয়ে কথা বলেছি।

রাশিয়া প্রসঙ্গ আসলে ডনাল্ড ট্রাম্প বলেন, পুতিনের সঙ্গে আমার কখনোই দেখা হয়নি। তবে ফ্যাক্ট চেক বলছে, তার মুখে প্রায়শই শোনা গেছে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের প্রশংসা।

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password