সোমবার শুরু হিলারি-ট্রাম্পের প্রথম বিতর্ক

যুক্তরাষ্ট্র প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আর বেশীদিন বাকি নেই। আগামী ৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে যুক্তরাষ্ট্র প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। তবে নির্বাচনের আগে সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিকটি হচ্ছে এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত বিতর্ক। এখন এই বিতর্ক নিয়েই চলছে অনেক জল্পনা কল্পনা। অনেক ভোটার, বিশেষ করে তরুণরা এই বিতর্কের ওপর বিচার-বিশ্লেষণ করেই তাদের সিদ্ধান্ত নেন। তিন দফা বিতর্কের মঞ্চে নিজেদের যোগ্যতার কথা দেশবাসী ও বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরতে পারবেন দুই প্রধান প্রার্থী- ডেমোক্র্যাট দলের হিলারি ক্লিনটন ও রিপাবলিকান দলের ডনাল্ড ট্রাম্প।

স্থানীয় সময় সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) রাতে হতে যাচ্ছে প্রথম বিতর্কটি। টিকেট কেটে এই বিতর্ক দেখার জন্য সবাই প্রস্তুত। তেমনভাবে প্রস্তুত হিলারি ও ট্রাম্প উভয় শিবিরও। এরই মধ্যে ঘোষণা করা হয়েছে বিতর্কের পূর্ণাঙ্গ শিডিউল।

বিতর্ক সম্প্রচার হবে স্থানীয় সময় রাত ৯টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত (বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার সকাল ৭ টা থেকে সাড়ে ৮টা) ২৬ সেপ্টেম্বর প্রথম বিতর্কের সঞ্চালক হবে এনবিসি নাইটলি নিউজের উপস্থাপক লেস্টার হল্ট। নিউইয়র্কের হেমস্টেডে হোফস্ট্রা বিশ্ববিদ্যালয়ে মিলনায়তনের মঞ্চে মুখোমুখি হবেন হিলারি ও ট্রাম্প।

প্রথম বিতর্কটি ৬টি অংশে বিভক্ত থাকবে। প্রতিভাগে কম-বেশি ১৫ মিনিট করে সময় বরাদ্দ থাকবে। সঞ্চালক নিজেই ৬টি প্রধান বিষয় নির্ধারণ করে একসপ্তাহ আগেই তা ঘোষণা করেছেন। প্রতিটি অংশে সঞ্চালক একটি প্রশ্ন উত্থাপন করে আলোচনা ফাঁদবেন। উভয় প্রার্থী তাতে ২ মিনিট করে সময় নিয়ে উত্তর দেবেন। এরপর প্রার্থীরা একজন অপর জনের উত্থাপিত প্রসঙ্গের উত্তর দিতে পারবেন। আলোচনা বিষয়ের গভীরে টেনে নিতে এবং উভয়ের মধ্যে সময়ের ভারসাম্য রাখতে সঞ্চালক ভূমিকা রাখবেন।

দ্বিতীয় বিতর্কটি হবে ৯ অক্টোবর রোববার সেন্ট লুইসের ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটিতে। এর সঞ্চালক থাকবেন এবিসি’র দিস উইক অনুষ্ঠানের উপস্থাপক ও চিফ গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স করেসপন্ডেন্ট মার্থা রাদাজ ও সিএনএন’র উপস্থাপক এন্ডারসন কুপার।

দ্বিতীয় বিতর্কটি অনুষ্ঠিত হবে একটি সভা আয়োজনের মতো করে। যার অর্ধেক প্রশ্নই আসবে অনুষ্ঠানের দর্শক হয়ে উপস্থিত থাকা সাধারণ নাগরিকরা। আর বাকি প্রশ্নগুলো আসবে সঞ্চালকদের তরফ থেকে। প্রথমেই দুই প্রার্থী দুই মিনিট সময়ে জবাব দেবেন, এরপর সঞ্চালক আলোচনা এগিয়ে নেবেন। এই বিতর্কে দর্শকসারিতে যারা থাকবেন তারা সকলেই হবেন এমন ভোটার যাদের কোনও প্রতিশ্রুতি নেই। গ্যালাপ অর্গানাইজেশন নিরপেক্ষ দৃষ্টিভঙ্গি থেকে তাদের বাছাই করে নেবে।

১৯ অক্টোবর বুধবার অনুষ্ঠিত হবে তৃতীয় ও শেষ প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্ক। লাগ ভেগাসের ইউনিভার্সিটি অব নেভাডায় এই বিতর্কের হোস্ট হবে ফক্স নিউজের উপস্থাপক ক্রিস ওয়ালেস। প্রথম বিতর্ক আয়োজনের সঙ্গে হুবহু মিল থাকবে এই বিতর্ক আয়োজনেও।

যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচানে ভাইস প্রেসিডেন্ট পদের প্রার্থীদেরও একটি বিতর্ক হয়। এবারের এই বিতর্কটি অনুষ্ঠিত হবে ৪ অক্টোবর মঙ্গলবার। ফার্মভিলের লংউড ইউনিভার্সিটিতে সিবিএস নিউজের এলাইন কুইজানোর উপস্থাপনায় এই বিতর্কে মুখোমুখি হবেন দুই রানিং মেট ডেমোক্র্যাট টিম কেইন এবং রিপাবলিকান মাইক পেন্স। এই বিতর্কটিও হবে দেড় ঘণ্টার ও একই সময়ে। তবে তা বিভক্ত থাকবে নয়টি অংশ। প্রতিভাগে ১০ মিনিট করে সময় বরাদ্দ থাকবে। সঞ্চালক একটি প্রশ্ন উত্থাপন করে আলোচনা ফাঁদবেন। উভয় প্রার্থী তাতে ২ মিনিট করে সময় নিয়ে উত্তর দেবেন। এরপর আলোচনা বিষয়ের গভীরে টেনে নিতে এবং উভয়ের মধ্যে সময়ের ভারসাম্য রাখতে সঞ্চালক ভূমিকা রাখবেন।

প্রায় সবগুলো প্রধান সংবাদ মাধ্যম, ইউটিউব, টুইটার এই বিতর্ক অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার করবে। সি-স্প্যান, এবিসি, সিবিএস, ফক্স ও এনবিসি ছাড়াও সিএনএন, ফক্সনিউজ, এমএসএনবিসিও রয়েছে এই তালিকায়।

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password