‘বাংলাদেশি কন্যা’মার্গারিতার বাবা আর নেই

রাশিয়ার হয়ে অলিম্পিকে স্বর্ণজয়ী ‘বাংলাদেশি কন্যা’ মার্গারিতা মামুন রিতার বাবা প্রকৌশলী আবদুল্লাহ আল মামুন মারা গেছেন। ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে রাশিয়াতেই মারা যান তিনি। বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে এই মৃত্যুর খবর পান রাজশাহীতে তাঁর বাড়িতে থাকা স্বজনেরা।

রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার কাশিপুর গ্রামে আবদুল্লাহ আল মামুনের পৈতৃক বাড়িতে থাকেন তাঁর বোন দিনা জহুরা। ভাইয়ের মৃত্যুর খবর শুনেই অচেতন হয়ে পড়েন তিনি। আবদুল্লাহ আল মামুনের ভাগ্নে জাহিদুল হাসান জানান, মাগরিবের পর গ্রামের বাড়িতে সবাই জানতে পারেন বাংলাদেশি সময় বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে তিনি মারা যান। দুপুরেও টিভিতে মার্গারিতার সংবর্ধনার খবর দেখেছে সবাই। বাড়িতে ছিল উৎসবের মতো। কিন্তু সন্ধ্যায় মৃত্যুর খবর আসার পর শোকের ছায়া নেমে আসে। আশেপাশের মানুষজন বাড়িতে ছুটে আসেন শোক ও সমবেদনা জানাতে।

জাহিদুল হাসান জানান, রাশিয়াতেই আবদুল্লাহ আল মামুনের দাফন সম্পন্ন হবে। তিনি জানান, বেশ আগে পেটে টিউমার হয়েছিল। সেই টিউমার অপারেশন করার পর ক্যানসার ধরা পড়ে।

দিনা জহুরা বলেন, গ্রামে তাকে সবাই চেনে সিপার নামে। আশির দশকে ইন্টারমিডিয়েট পাশ করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে ভর্তি হয়েছিলেন। কিন্তু মেডিকেলে মানুষের কাটাছেঁড়া সহ্য করতে পারতেন না। সেখানে কয়েক মাস পড়ার পরেই অসুস্থ হয়ে পড়েন। এর মধ্যে খবর আসে স্কলারশিপের। চলে যান তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়নে। সেখানেই আন্না নামের এক নারীকে বিয়ে করে স্থায়ী হন। মার্গারিতারও জন্ম রাশিয়াতেই। মাঝে-মধ্যেই দেশে আসতেন মামুন।

সদ্য সমাপ্ত অলিম্পিকে রিদমিক জিমন্যাস্টিকসে সোনা জেতেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রুশ জিমন্যাস্ট মার্গারিতা মামুন রিতা।

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password