ট্রাফিক দ্বারা লাঞ্ছিত এক বোনের আর্তনাদ !

রোববার দুপুর ২ টা ৪০ মিনিট। রাজধানীর গুলশান-২ এলাকায় গামকা অফিসের সামনে এক বোনের আসহায়ত্ত চোখে পড়ে । বেশ কিছু লোকজনের সমাগম দেখে একটু এগিয়ে যেতেই দেখলাম, ট্রাফিক কনসটেবল সিদ্দিক এবং এটি এস আই রকিবুল্লাহ বোনটিকে অপমানজনক কথা বলছে ।

ঠিক সেই মুহুর্তে লোকমুখে জানলাম, এক বোন এবং তার ভাই গুলশান ২ নং একটা স্কুল থেকে রিক্সা যোগে আনার পথে গামকা ট্রাফিক সিগন্যাল অতিক্রম করলে দুইপাশে অবস্থানরত রিক্সা ও প্রাইভেট কার দাঁড়ানো থাকার  ফলে রিক্সাটি চলতে বাধার মুখে পড়ে। মেয়েটি ট্রাফিক কনসটেবল সিদ্দিককে অনুরোধ করে বলে ভাই বাচ্চা নিয়ে অনেক কষ্টে রিক্সাটি পেয়েছি যেতে দেন দয়া করে। তিনি দয়া তো করেনি বরং রেগে যান ।

এমতাবস্থায় মেয়েটি বলেন, ভদ্রভাবে কথা বলেন। তখন ট্রাফিক কনসটেবল সিদ্দিক তার পরিহিত পোশাকের চেইন টি খুলে বলেন পারলে কিছু কর। তখন তার ভাই বলেন এটা কি করলেন আপনি। এই সময় এটি এস আই রকিবুল্লাহ এসে তাদেরকে হুমকি দেয় এবং জেলে আটকাবে বলে অকথ্য ভাবে গালিমন্দ করে। মেয়েটি বলে ওরা পুলিশ তাই যা খুশি তাই বলল বলে চোখের জল ফেলতে ফেলতে বলেন রক্ষকই ভক্ষক। যেখানে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নারীদের প্রতি শ্রদ্ধার কথা বলছেন সেখানে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী একি করল। এমন দৃশ্য সত্যিই দু:খজনক।

তাই নাগরিক সাংবাদিকতায় আমার লেখা-ট্রাফিক দ্বারা লাঞ্ছিত এক বোনের আর্তনাদ !

অতিথি লেখক: আনিসুর রহমান

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password