আজকের ম্যাচ নিশ্চিত করবে বাংলাদেশের অবস্থান

ভারতে অনুষ্ঠানরত ওয়ার্ল্ড টি২০-র আসরে সুপার টেনে ওঠার লক্ষ্যে বাংলাদেশ রোববার ধরমশালায় খেলতে নামবে ওমানের বিরুদ্ধে। শনিবারের খেলায় জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে ইতিমধ্যেই সুপার টেনের গ্রুপ ওয়ানে উঠে গেছে আফগানিস্তান।

বাংলাদেশকে উঠতে হলে ওমানকে হারাতে হবে। প্রতিপক্ষ ওমান আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অঙ্গনে একেবারেই অনভিজ্ঞ দল হলেও বাংলাদেশ বলছে তাদের হালকাভাবে নেওয়ার কোনও সুযোগ নেই, বিশেষ করে যেহেতু এই ম্যাচটাই গ্রুপে ফাইনালের মর্যাদা পেয়ে গেছে। কারণ শুক্রবারের দুটি ম্যাচই বৃষ্টিতে ভেস্তে যাওয়ায় বাংলাদেশ ও ওমান, দুদলেরই পয়েন্ট এখন তিন, যদিও নেট রানরেটে বাংলাদেশই সামান্য এগিয়ে আছে। এদিকে ধরমশালায় বৃষ্টির পূর্বাভাস আছে রবিবারেও।

ধরমশালায় বিশ্বকাপের কোয়ালিফাইং গ্রুপ এ-তে যে ম্যাচটাকে বাংলাদেশের জন্য সবচেয়ে সহজ বলে ধরা হচ্ছিল, হিমাচলের পাহাড়ে লাগাতার বৃষ্টি আর গত বুধবার আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওমানের নাটকীয় জয়ের সুবাদে সেই ম্যাচটাই এখন এই গ্রুপে হঠাৎ করে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। বিশ্বকাপে বাংলাদেশের পরের পর্বে যাওয়াটাও এখন নির্ভর করছে এই ম্যাচের ফলের ওপরই।

এমনিতে কাগজে-কলমে দুর্বল ওমানের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের দুশ্চিন্তা থাকার কথা নয়, কিন্তু বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কান কোচ কোচ চন্দিকা হাতুরুসিঙ্ঘে বলছিলেন, আয়ার্ল্যান্ডের বিরুদ্ধে অভাবিত জয়টা নিশ্চয় ওমানকে বাড়তি আত্মবিশ্বাস দেবে। ওমান এখন বিশ্বাস করবে তারা যে কোনও দলকে হারাতে পারবে। ক্রিকেটের জন্য এটা খুব ভাল ব্যাপার। আমরা সবাই জানি ওমানে প্রায় সব ক্রিকেটারই অপেশাদার, অথচ যাদেরকে তারা হারিয়েছে সেই আয়ার্ল্যান্ডে কিন্তু বেশ কজন পেশাদার, পূর্ণ সময়ের ক্রিকেটার আছে। ওই ম্যাচে নিজেদের নার্ভ ধরে রেখে ওমান যেভাবে খেলেছে সেটা সত্যিই দারুণ ব্যাপার।

হাতুরুসিঙ্ঘের দেশেরই লোক, শ্রীলঙ্কার সাবেক ক্যাপ্টেন দুলিপ মেন্ডিসই গত দুবছর ধরে ওমান দলটাকে নিজের হাতে গড়ে তুলছেন। ওমান দলে প্রবাসী পাকিস্তানি, ভারতীয়, শ্রীলঙ্কানরা যেমন আছেন, তেমনি খাঁটি ওমানিরাও আছেন। এদের বেশির ভাগই নানা কোম্পানিতে পুরো সময়ের চাকরি করেন, ট্রেনিং করার সুযোগ মেলে অফিসে যাওয়ার আগে বা অফিস থেকে ফিরে। দুলিপ মেন্ডিস বলছিলেন, এমন একটা দলকে নিয়েও ওমান লড়াই দিতে তৈরি, তবে বাংলাদেশও সম্প্রতি অসাধারণ উন্নতি করেছে। আমি আগে যে বাংলাদেশ দলকে দেখেছি, তার তুলনায় এরা অনেক বেশি ভাল। বছরকয়েক আগেও আমি বাংলাদেশে ক্লাব ক্রিকেট খেলেছি, তখনকার সঙ্গেও এই দলের কোনও তুলনা চলে না।

মুশকিল হল, বাংলাদেশের কোচও কিন্তু আমার দেশেরই লোক, ফলে অন্যরকম টক্কর হবে। আর আমাকে যদি জিজ্ঞেস করেন কে ফেভারিট, আমি তো মনে করি অবশ্যই ওমান। রসিকতার সুরে দুলিপ মেন্ডিস এ কথা বললেও বাংলাদেশ দলের অবশ্য রসিকতার কোনও অবকাশই নেই, কারণ প্রতিপক্ষ যারাই হোক, এ ম্যাচে জিতেই তাদের সুপার টেনে উঠতে হবে। ম্যাচ পরিত্যক্ত হলেও অবশ্য বাংলাদেশই পরের পর্বে যাবে। তবু বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা বলছিলেন, ওমান দলটা তাদের একেবারেই অপরিচিত, এবং তাদের বিরুদ্ধেও সেরাটা দেওয়া ছাড়া কোনও উপায় নেই। প্রথম ম্যাচে আয়ার্ল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওমানের জয়ের চেয়েও বেশি চর্চা হয়েছে তাদের ফিল্ডার জিশান মাকসুদের প্রায় উড়ে গিয়ে বাঁ-হাতে ধরা অসাধারণ ক্যাচ নিয়ে।

বৃষ্টি বাধা না-দিলে রবিবারের ম্যাচ যদি শেষ পর্যন্ত হয়, তাহলে ওমান বাংলাদেশকে হারাতে পারবে সেই সম্ভাবনা অবশ্যই ক্ষীণ, কিন্তু জিশানের সেদিনের ক্যাচের মতো এক আধটা চমক অবশ্যই বাংলাদেশের অপেক্ষায় থাকবে।

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password