পাবনায় জঙ্গি ছেলেকে পুলিশে দিলেন মা

জেলা প্রতিবেদক :

বুধবার (২৮ অক্টোবর) পাবনা সদর উপজেলার মজিদপুর গ্রামে ছেলের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টা ও জঙ্গি-সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ ওঠায় ছেলেকে নিজেই পুলিশে সোপর্দ করেছেন মা আজমিরা খাতুন।

পাবনার ঈশ্বরদীতে গির্জার যাজক লুক সরকারকে হত্যার চেষ্টায় জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠায় ছেলে রাকিবুল ইসলামকে (২২) পুলিশের হাতে তুলে দেন তিনি।

রাকিবুলের মায়ের উদ্যোগে তার বাবা, চাচা ও স্থানীয় কয়েকজনের উপস্থিতিতে পুলিশের কাছে ধরিয়ে দেওয়া হয়। রাকিবুল নিষিদ্ধঘোষিত জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) পাবনা জেলা কমান্ডার বলে জানিয়েছে পুলিশ।

৫ অক্টোবর সকালে ঈশ্বরদীর গোকুলনগর ‘ফেইথ বাইবেল চার্চ’ এর যাজক লুক সরকারকে নিজ বাড়িতে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা করে জঙ্গিরা। ওই মামলায় পুলিশ ১২ অক্টোবর পাবনা, সিরাজগঞ্জ ও ঢাকা থেকে সন্দেহভাজন পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে একজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পাবনায় জেএমবির কমান্ডার হিসেবে রাকিবুলের নাম উঠে আসে।

পুলিশ, প্রত্যক্ষদর্শী ও পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, যাজক হত্যাচেষ্টার পর থেকে পলাতক ছিলেন রাকিবুল। সম্প্রতি পুলিশ তার জেএমবি সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি পরিবারকে জানায়। এরপর কৌশলে তাকে বাড়িতে ফিরিয়ে আনা হয়।

বুধবার বেলা ১১টার দিকে পরিবারের লোকজন রাকিবুলকে গ্রামের পাশের টেবুনিয়া বাজারে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আহম্মেদ শরীফের ব্যবসায়িক কার্যালয়ে নিয়ে যান এবং পুলিশে খবর দেন।

পাবনা সদর থানার পুলিশ ও জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) দুটি দল সেখানে গেলে রাকিবুলের বাবা আবদুল মালেক, চাচা নায়েব আলীসহ অন্যরা তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

ছেলেকে পুলিশে সোপর্দ করা প্রসঙ্গে আজমিরা খাতুন জানান, ছেলে বিপথে গেছে তা তিনি বুঝতে পারেননি। যখন জানতে পেরেছেন তখন তাকে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছেন।

এখন কষ্ট পেলেও ছেলে ভালো পথে ফিরে আসুক এই প্রত্যাশাতেই ছেলেকে পুলিশে সোপর্দ করেছেন বলেও জানান আজমিরা খাতুন।

রাকিবুলের চাচা নায়েব আলী জানান, এমন কর্মকাণ্ডে রাকিবুল জড়িত, তা তারা জানতেন না। পুলিশই তাদের বিষয়টি জানায়। পরে রাকিবুলের মায়ের উদ্যোগে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১১০৭ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৯, ২০১৫

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password