মেসি-ম্যারাডোনার ‘পাশে’ আন্দ্রেসেন

স্পোর্টস ডেস্ক :

লিওন আন্দ্রেসেনকে চেনেন? চিনতে না পারলে দোষের কিছু নেই। কারণ বিশ্ব ফুটবলের এত এত তারকার মাঝে এই ডেনিশ মিডফিল্ডারকে চিনতে না পারলেও ক্ষতি নেই। কিন্তু গত রোববার এমনই এক কাণ্ড ঘটালেন তিনি, বিশ্ব ফুটবলে বেশ শোরগোল পড়ে গেছে।

মাত্র একটি গোল করেই মেসি-ম্যারাডোনার সঙ্গে জড়িয়ে ফেলেছেন নিজের নাম। দুই যুগের দুই ফুটবল জাদুকরের মতো ফুটবল মাঠে ‘ঈশ্বরের হাত’-এর স্মৃতি যে আবারও ফিরিয়ে এনেছেন আন্দ্রেসেন।

বুন্দেসলিগায় এফসি কোলনের বিপক্ষে খেলতে নেমেছিল হানোভার। খেলার ৩৮টি মিনিটের মাথায় এল সেই মুহূর্ত। কোলনের ডি-বক্সের ভেতরে বল পেয়ে যান আন্দ্রেসেন। কিন্তু বলটি তাঁর কাছে এমনই এক উচ্চতায় পৌঁছাল যে, না পারছিলেন শট নিতে, না পারছিলেন মাথা ছোঁয়াতে।

৩২ বছরের আন্দ্রেসেন তাই বুদ্ধি করে ডান হাত বাড়িয়ে দিলেন, আর বলটিও গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে জালে জড়িয়ে গেল। গোল! সঙ্গে সঙ্গে প্রতিপক্ষের সবাই হ্যান্ডবলের আবেদনও করে। কিন্তু কোনো এক কারণে রেফারি সেবাস্তিয়ান ডাঙ্কের্টের চোখেই পড়েনি এই ঘটনা। গোলের সিদ্ধান্তে অটল রইলেন।

রেফারির এই ‘দৃষ্টিহীনতায়’ কোলন কোচ পিটার স্টোগার এতটাই বিরক্ত হয়েছিলেন যে, চোখ থেকে নিজের চশমা খুলে বাড়িয়ে ধরলেন রেফারিকে উদ্দেশ করে! ভাব খানা এমন, দরকার হলে আমার চশমা নিয়ে যাও, তাও একটু খেলাটি একটু ভালোভাবে পরিচালনা কর!

কোলন কোচের বিরক্তির কারণ কাছে। মাঠে ছড়ি ঘুরিয়েছে তাঁর দলই। কিন্তু বিতর্কিত এই গোলেই ম্যাচ হেরেছে কোলন। গোলদাতা আন্দ্রেসেনের প্রতিক্রিয়া শুনলে তো কোলন কোচ রেফারির মুন্ডুপাতই করতেন। আন্দ্রেসেন নিজেই নাকি গোলের সিদ্ধান্তে অবাক, ‘এটি (হাত দিয়ে গোল দেওয়া) আসলে মুহূর্তের প্রতিক্রিয়া, এত দ্রুত ঘটনাটি হয়েছে কিছুই বোঝার উপায় ছিল না। এটি পরিষ্কার হ্যান্ডবল ছিল।’

এর আগে ২০০৭ সালে এসপানিওলের বিপক্ষে বার্সেলোনার হয়ে হাত দিয়ে গোল করেছিলেন লিওনেল মেসি। সেই গোলে হার থেকে বেচেছিল তাঁর দল। তবে হাত দিয়ে গোল করার সবচেয়ে বিখ্যাত ঘটনাটি ১৯৮৬ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে। যে গোলটি ম্যারাডোনার সৌজন্যেই ‘হ্যান্ড অব গড’ নামে বিখ্যাত হয়ে আছে।

সূত্র: গোলডটকম।

বাংলাদেশ সময়: ১১৪৭ ঘণ্টা, ২০ অক্টোবর,২০১৫

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password