ছাদেও থার্টিফার্স্ট’র অনুষ্ঠানে না

ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মো: আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, আসন্ন থার্টিফার্স্ট নাইটে পুলিশের কাছে কোনো সুনির্দিষ্ট হুমকি নেই। তবুও পুলিশ জনগণের নিরাপত্তার জন্য সবধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে প্রস্তুত আছে।

থার্টিফার্স্ট নাইটের সকল অনুষ্ঠান চার দেয়ালের মধ্যে করতে হবে। উন্মুক্তভাবে কোনো ধরনের অনুষ্ঠান করা যাবে না। এমনকি বাড়ির ছাদেও কোনো অনুষ্ঠান, পটকা ফোটাতে বা বাজনা বাজানো যাবে না। এছাড়াও থার্টিফার্স্ট নাইটে অস্ত্রের লাইসেন্সধারীও তাদের বৈধ অস্ত্র বহন করতে পারবে না বলে তিনি জানান।
আজ সকালে রাজধানীর মিন্টো রোডের ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে থার্টিফার্স্ট’ নাইটের বিষয়ে সাংবাদিকদের অবহিত করার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ইংরেজি নববর্ষকে স্বাগত জানাতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে তাল মিলিয়ে আমাদের দেশের নাগরিকেরা স্বতঃস্ফুর্তভাবে থার্টিফার্স্ট নাইট উদযাপন করেন। এ আনন্দ উৎসব উদযাপনের নামে কিছু উচ্ছৃঙ্খল ব্যক্তি নিজস্ব সংস্কৃতি, মূল্যবোধ ও ঐতিহ্য বিরোধী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হয়ে থাকে। কতিপয় ব্যক্তি পটকাবাজি, আতশবাজি, অশোভন আচরণ, বেপরোয়া গাড়ি ও মোটরসাইকেল চালানোর মাধ্যমে রাস্তায় বিশৃংখলা সৃষ্টি করে।

তিনি আরও বলেন, ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা থেকে ১ জানুয়ারি বিকাল পর্যন্ত সব বার বন্ধ থাকবে। গুলশান, বনানী, বারিধারা এলাকায় রাত ৮ টার পর বহিরাগতদের প্রবেশ করতে দেয়া হবে না। প্রত্যেকটি প্রবেশ পথে চেকপোস্ট থাকবে। কোনো ধরনের ব্যাগ ও দাহ্য পদার্থ বহন করা সম্পন্ন নিষিদ্ধ। সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে শুধু মাত্র কাকলী ও আমতলী ক্রসিং দিয়ে গুলশান ও বনানী এলাকায় প্রবেশ করা যাবে। তবে বের হওয়ার জন্য সব রাস্তা উন্মুক্ত থাকবে।

সংবাদ সম্মেলনে এসময় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার ও সিসিটিসি ইউনিটের প্রধান ডিআইজি মো: মনিরুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ক্রাইম) মীর রেজাউল করীম, অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) ডিআইজি ত্তয়াই বেলালুর রহমান, ডিএমপির যুগ্ম কমিশনার (ক্রাইম) কৃষ্ণপদ রায় ও ডিএমপি ডিসি (মিডিয়া) মো: মাসুদুর রহমান প্রমুখ।

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password