৫ জি আসছে কি ?

মোবাইলের দুনিয়ায় প্রতিটি জি অর্থ জেনারেশন বা প্রজন্মকে বোঝায়। প্রতিটি জি বা প্রজন্ম যখন চালু করতে হয়, তখন প্রযুক্তিবিশ্বকে কতগুলো বিষয়ে একমত হতে হয়।

চলতি বছরেই ৫ জি প্রযুক্তি নিয়ে পরীক্ষা শুরু করছে চীন। দেশটির প্রধান তিন মোবাইল অপারেটর কয়েকটি শহরে বছরের দ্বিতীয়ার্ধে ৫ জি নিয়ে পরীক্ষা চালাবে বলে সিনহুয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

চীন ছাড়াও ২০২০ সালের মধ্যে বাণিজ্যিকভাবে ৫ জি চালুর লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাজ্য। তবে ওই সময় নির্ধারণকে বিশেষজ্ঞরা ‘উচ্চাকাঙ্ক্ষী’ বলছেন। পাকিস্তানের তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী আনুশা রহমান বলেছেন, উপমহাদেশের মধ্যে প্রথম ৫জি নিয়ে পরীক্ষা চালাবে পাকিস্তান।

৫ জি কী? এখন পর্যন্ত ৫ জির মান নির্ধারণ করতে পারেননি বিশেষজ্ঞরা। তবে এটি নিশ্চয় ইন্টারনেটের দৃশ্যপট বদলে দেবে। বিশাল তথ্য কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই ডাউনলোড করা যাবে। বর্তমানে এলটিই প্রযুক্তিতে ডেটা স্থানান্তরের গতির চেয়ে ৫ জির গতি বেশি হবে। এখন পর্যন্ত ৫ জির প্রোটোটাইপ নিয়ে চীন যে পরীক্ষা চালিয়েছে, তাতে ৩ দশমিক ৫ জিবিপিএস পর্যন্ত গতি পাওয়া গেছে।

জাতিসংঘের ইন্টারন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশনস ইউনিয়ন (আইটিইউ) সংস্থাটির দায়িত্ব হচ্ছে, এ নেটওয়ার্কের মান ঠিক করা।

চায়না মোবাইল, চায়না ইউনিকম ও চায়না টেলিকমের সূত্র উদ্ধৃত করে সিনহুয়া বলেছে, পরীক্ষামূলক ওই প্রকল্পটি চীনের বেইজিং, সাংহাই, গুয়াংজু, চংকিং, সুজো ও নিংবোতে পরিচালিত হবে। ৫ জি নিয়ে পরীক্ষা চালাতে বেজ স্টেশন নির্মাণ, স্বয়ংক্রিয় গাড়ি, স্মার্ট সিটি, স্মার্ট হোমের মতো অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করা হবে। পরবর্তী ধাপে আরও ১০টি শহরে ৫ জি পরীক্ষা বর্ধিত করা হবে। এ পদক্ষেপ নেওয়ার ফলে বৈশ্বিক ৫ জির মান নির্ধারণে শীর্ষস্থানীয় ভূমিকা রাখবে চীন।

আইটিইউয়ের বিশেষজ্ঞরা ৫ জির পারফরম্যান্সের প্রয়োজনীয় কয়েকটি বিষয়ে একমত হয়েছেন। যার মধ্যে শুরুতেই আছে কল ড্রপের বিষয়টি। ৫ জিতে কোনো কল ড্রপ হবে না। ৫ জি নেটওয়ার্কের টাওয়ার বদল করা হলেও কল ড্রপ বা ইন্টারনেট সংযোগের কোনো পরিবর্তন হবে না।

৫ জিতে ব্যাটারিতে চার্জ কম ফুরাবে। সাধারণত ডেটা ব্যবহারের সময় মোবাইলের ব্যাটারির চার্জ দ্রুত শেষ হতে দেখা যায়। ৫ জিতে ব্যাটারির দক্ষতা বেড়ে যাবে। ফোন যখন নেটওয়ার্ক ব্যবহার করবে না, তখনকার স্লিপ মোড ফিচারটি উন্নত হবে।

দ্রুতগতিতে চলার সময়েও ৫ জি ভালো কাজ করবে। গত যদি ঘণ্টায় ৫০০ কিলোমিটার পর্যন্ত হয়, তবুও ৫ জি দুর্দান্ত কাজ করবে।

তথ্যসূত্র: ডন

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password