গুলশানের বাড়ি ছাড়তে হলো মওদুদকে

একতলা বাড়িটিতে তিন যুগের বেশি সময় বসবাস করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ। বাড়িটি নিয়ন্ত্রণে নিতে আজ দুপুরে রাজউকের ম্যাজিস্ট্রেট খন্দকার অলিউর রহমানের নেতৃত্বে কাজ শুরু হয়। বাড়িটি ঘিরে কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হয়। মোতায়েন করা হয় পুলিশ, জলকামান, প্রিজনভ্যান, সাঁজোয়া যান ও বুলডোজার। এ ছাড়া মালামাল সরানোর জন্য ব্যবহার করা হয় রাজউকের নিজস্ব দুটি বড় ট্রাকসহ বেশ কয়েকটি ট্রাক। এসব ট্রাকে করে মালামাল গুলশান-২–এর ৫১ নম্বর সড়কে ২ নম্বরে ছয়তলা ভবনে মওদুদ আহমদের নিজস্ব একটি ফ্ল্যাটে নিয়ে যাওয়া হয়।

আইনি লড়াইয়ে হেরে যাওয়ার পর দীর্ঘদিন ধরে ভোগ করা গুলশানের বাড়িটি ছাড়তে হলো বিএনপির স্থায়ী তাকে। কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদকে। আজ বুধবার দুপুরে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) গুলশান-২ নম্বরের ১৫৯ নম্বর বাড়িটি নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার কার্যক্রম শুরু করে। বাড়ি থেকে মালামাল সরানোর মধ্যেই সন্ধ্যা ছয়টার দিকে একটি প্রাইভেট কারে করে তিনি সেখান থেকে চলে যান।

বেলা দুইটার দিকে বাড়ির সামনে গিয়ে দেখা গেল, বাড়িটি ঘিরে কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ। রাখা হয়েছে জলকামান, প্রিজনভ্যান, সাঁজোয়া যান ও বুলডোজার। এ ছাড়া মালামাল সরানোর জন্য আছে দুটি বড় ট্রাক। সেখানে উপস্থিত আছেন রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বেলা পৌনে তিনটার দিক থেকে বাসার ভেতর থেকে মালামাল নিয়ে শ্রমিকেরা রাজউকের ট্রাকে তুলতে শুরু করেন।

 

 

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password