ফারিয়ার ‘অশ্লীল’ গান সরাতে আইনি নোটিশ

সম্প্রতি ইউটিউবে মুক্তি পাওয়া‘আল্লাহ মেহেরবান’গানটি সরিয়ে নিতে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন এক আইনজীবী। আগামী তিনদিনের মধ্যে গানটি ইউটিউব থেকে সরিয়ে নিতে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আজিজুল বাশারের পক্ষে ৭জনকে এ আইনি নোটিশ পাঠান আইনজীবী অ্যাডভোকেট হোজ্জাতুল ইসলাম।

আইনি নোটিশের ৭জন প্রাপক হলেন, জাজ মাল্টিমিডিয়া, চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের চেয়ারম্যান, পুলিশের মহাপরিদর্শক, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সভাপতি, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব ও তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব। অ্যাডভোকেট হোজ্জাতুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আইনজীবী হোজ্জাতুল ইসলাম জানান, এ গানের চিত্রায়ন ও দৃশ্যায়নের মাধ্যমে আপত্তিকর দৃশ্য দেখানো হয়েছে। যা ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হেনেছে। অতিদ্রুত ইউটিউব থেকে এ ভিডিওসম্বলিত গানটি অপসারণ করতে বলা হয়েছে। ২০১৩ সালে জিতের সুপারহিট ছবি ‘বস’ এর সিকুয়ালে নির্মিত হয়েছে ‘বস-২’। এই ছবিকে যৌথ প্রযোজনার ছবি বলা হলেও ‘বস-২’ ছবির পরিচালক একজনই, তিনি বাবা যাদব। নেই তারকা, টেকনিশিয়ান ও শুটিং স্পটের ভারসাম্যও। ভারতের জিৎ এবং বাংলাদেশের নুসরাত ফারিয়া অভিনীত জাজ মাল্টিমিডিয়ার এই ভিডিওটি প্রকাশের ২৪ ঘণ্টা না পেরোতেই সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

এত সমালোচনা, অনিয়ম ও প্রতারণার পরও এই ছবি কেমন করে বাংলাদেশের সেন্সর বোর্ডে মুক্তির ছাড়পত্র পাবে, সেটাই দেখার বিষয়। সুফিয়ানা ধাঁচের গানটিতে একটু খোলামেলা পোশাকে নিজেকে উপস্থাপনের কারণে ঢাকাই সিনেমার দর্শকদের তীব্র সমালোচনায় মুখে পড়েন নুসরাত ফারিয়া। গানটিতে ফারিয়ার সঙ্গে অভিনয় করেছেন টালিগঞ্জের সুপারস্টার জিৎ। শুক্রবার সন্ধ্যায় ‘আল্লাহ মেহেরবান’ গানটি প্রকাশের পরে শনিবার বিকেল ৪টা পর্যন্ত দুই লাখ ৫৫ হাজার ৬০৫ বার দেখা হয়েছে। গানটিতে লাইকের তুলনায় ডিজলাইক জুটেছে বেশি। গানটিতে লাইক দিয়েছেন তিন হাজার ১০০ জন এবং ডিজলাইক দিয়েছেন সাত হাজার ২শ ৩১ জন। শুধু তাই নয়, সেখানে গানটিকে ঘিরে নেতিবাচক মন্তব্যর ঝড়ই বইছে বেশি। ‘আল্লাহ মেহেরবান’ গানের কথা লিখেছেন প্রাঞ্জল। গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন নাকাশ আজিজ ও জোনিতা গান্ধী।

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password