সুইডেনে গণধর্ষণ এবং ফেসবুকে সরাসরি সম্প্রচার

সুইডেনে এক নারীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। নরপিশাচরা তাকে শুধু ধর্ষণই করে নি, একই সঙ্গে ধর্ষণদৃশ্য ফেসবুকে সরাসরি সম্প্রচার করেছে। তার নাম জোসেফাইন লুন্ডগ্রিন (২১)। এ দৃশ্য দেখে তিনি হতবাক হয়ে যান। সঙ্গে সঙ্গে ফোন করেন পুলিশে। ফলে পুলিশ আটক করে ধর্ষকদের।

এ নৃশংসতায় জড়িত থাকার সন্দেহে পুলিশ তিন ব্যক্তিকে রোববার আটক করেছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। এতে বলা হয়েছে, দেশটির আপসালা এলাকার এক নারী ফেসবুকে সরাসরি ওই দৃশ্য দেখতে পেয়েছেন।

তিনি পুলিশকে ঘটনা খুলে বলেন। তিনি বলেন, এক নারীকে গণধর্ষণ করেছে একদল পুরুষ। এ দৃশ্য তারা ফেসবুকে সরাসরি (লাইভ) প্রচার করেছে। ফেসবুকে যারা এ দৃশ্য দেখেছেন তারা বলছেন, ধর্ষকদের একজন ভিডিওর শেষ দিকে বলতে শুনেছেন ‘তুমি ধর্ষিত হয়েছো’। তারপর সে অট্টহাসিতে ফেটে পড়ে। পরে পুলিশ ও অন্যরা বলেছেন, তারা ওই ভিডিও ফুটেজ দেখেছেন। ফেসবুকে যে গ্রুপে ওই ভিডিও প্রচার করা হয় তাতে রয়েছে কয়েক হাজার সদস্য। সন্দেহজনকভাবে পুলিশ স্থানীয় একটি এপার্টমেন্ট থেকে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে। এদের বয়স ১৯ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে। এ ছাড়া আটক করা হয়েছে এক নারীকে।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের শেষের দিকে ফেসবুক লাইভ-প্রচার ব্যবস্থা চালু করে। এখন ঘটনাস্থল থেকে খবর প্রচারের জন্য এ মাধ্যমটি ব্যাপকভাবে ব্যবহার করে থাকে মিডিয়া। কেউ বা বন্ধুদের সঙ্গে সরাসরি সম্প্রচারে এসে আড্ডা দেন। কেউবা মজা করেন। কিন্তু ফেসবুকে ধর্ষণ দৃশ্য সরাসরি প্রচারের ঘটনা সম্ভবত এর আগে কখনো শোনা যায় নি।

Login

Welcome! Login in to your account

Remember me Lost your password?

Lost Password